শব্দচয়ন
বাংলা ব্লগ

আমি সকলের আশীর্বাদ প্রার্থী

সোনেলা ব্লগ ও শব্দচয়ন ব্লগের সবাই কেমন আছেন? আশা করি মহান সৃষ্টিকর্তার অশেষ কৃপায় সবাই শারীরিক ও মানসিকভাবে ভালো আছেন। ভালো থাকাটাই কামনা করি। আপনাদের আশীর্বাদে আমিও বর্তমানে মোটামুটি ভালো আছি, শারীরিকভাবে সুস্থও আছি। সম্মানিত লেখক/ লেখিকাবৃন্দ, আমি উল্লেখ করেছি যে, আমি মোটামুটি সুস্থ আছি। এর মানে হলো গত ৮-৩-২০২৪ইং তারিখ বিকাল ৫ টায় হঠাৎ আমার ব্রেন…
বিস্তারিত ...

ঘুচে যাক বন্ধান্ত্য, ঘর জুড়ে আসুক সন্তান।

নারীর সকল দুখ, ব্যাথা-বেদনা মা হতে না পারা। সকল আপন হয়ে যায় পর, কষ্টএ  পাজর ভাংগে । সন্তানের মা হতে না পারার জ্বালা। এবার আসি টেস্টিউব বা আধুনিক চিকিৎসা কিভাবে সন্তান না হওয়া বাবা-মাকে স্রষ্টার আশির্বাদ নিয়ে সন্তানধারণের ব্যবস্থা করে থাকে। প্রকৃতপক্ষে ভ্রণ টেস্টটিউবে বেড়ে ওঠে না, বাড়ে মায়ের জরায়ুতেই আর দশটি বাচ্চার মতোই। এ পদ্ধতিতে পুরুষের…
বিস্তারিত ...

লোকমান হাকিমের কেরামতির গল্প (পর্ব-৫) শেষ পর্ব

লোকমান হাকিমের কেরামতির গল্প(পর্ব-৪) এখানে। কোঁয়া কোঁয়া সাপের রূপধারণ করে কুলসুম দরিয়ায় যখন নামছে, তখনই লোকমান হাকিম তার সাথে নেওয়া ঔষধের শিশিগুলো রেডি করে ফেললো। যাতে তাড়াতাড়ি তার করণীয় কাজ সেরে নেওয়া যায়। লোকমান হাকিমের বাম হাত রাখল জানালার বাইরে। যাতে সাপের লেজটা খুব সহজে ধরতে পারে। লোকমান হাকিম ভয়কে উপেক্ষা করে সময়মতো সাপের লেজটা ধরে ফেললো।…
বিস্তারিত ...

লোকমান হাকিমের কেরামতির গল্প (পর্ব-৪)

লোকমান হাকিমের কেরামতির গল্ (পর্ব-৩) এখানে। কোঁয়া কোঁয়ার সাথে সেদিন লোকমান হাকিমের কথা-বার্তা এ-ই পর্যন্তই শেষ। মানে পাকাপাকি কথা। কোঁয়া কোঁয়া আর লোকমান হাকিমের কথা-বার্তার সময় বাদশাহ যে জ্ঞানহারা হয়ে পড়েছিল, তা ছিল বন্ধু লোকমান হাকিমের অজানা। বাদশাহর সাথে কথা হয় সাগর ভ্রমণের যাত্রাপথে ক'দিন আগে। শেষ বিরতির সময়। বাদশাহর মুল্লুক থেকে নৌকা ছেড়ে…
বিস্তারিত ...

কর্মকারে ফাঁকা

স্বাধীন এখন খণ্ড খণ্ড কোন স্বাধীনে চলি, বুঝা দায় ইচ্ছা আছে দেখার খুব- কে করে খর্ব; শুধু উল্টো লাফ বানার ঝাপ করে কে গর্ব! হনুমান তো রাজা, কে বলে দাঁড়া; স্বাধীনতা আকাশের তারা- সোনালি রোদ্দুর মাটির ঘর বানা কাগজে- কলমে ঠোঁটের ভাজে- স্বাধীন কর্মকারে ফাঁকা। ১৯ অগ্রহায়ণ কার্তিক ১৪৩০, ০৪ ডিসেম্বর ২৩
বিস্তারিত ...

বিজয়ের মাসে পরাজয়ের কথা

আমার জন্ম ১৯৬৩ সালে। জন্মেছিলাম নোয়াখালীর বজরা রেলস্টেশনের পশ্চিমে মাহাতাবপুর গ্রামের এক হিন্দু পরিবারে। আমি ছিলাম চার বোন দুই-ভাইয়ের মধ্যে আমি সবার ছোট। আমার বয়স যখন পাঁচ-বছর, তখন একজন পুরোহিত দ্বারা সরস্বতী পূজার দিন আমার হাতেখড়ি দেওয়া হয়। সেই হাতেখড়ি অনুষ্ঠানে আমি সহ আমাদের পাশের বাড়ির আরও ৩/৪ জনকে হাতেখড়ি দেয় যার-যার অভিভাবকরা। হাতেখড়ি…
বিস্তারিত ...

বিচ্ছু মানুষ অমানুষ পর্ব ০৩

দরজায় নক, ঠক ঠক শব্দের সাথে কলিং বেলের রিং টোনের শব্দে মালতী রান্না ঘর হতে দ্রুত দরজাটা খুললেন।শিকলে আটকানো দরজাটা একটু ফাক করে জিঞ্জাসা করলেন। -কে? -আপনাদের একটি চিঠি আছে। লোকটি দরজার ফাকে চিঠিটা মালতীর হাতে দিয়ে প্রস্থান নিলেন। চিঠিটা না খুলে রেখে দিলেন মালতী।ইকরামুল রাতে ঘরে ফিরলেন।মালতী চিঠিটা তার হাতে  দিলেন। ওয়াস রুম থেকে ফিরে এসে …
বিস্তারিত ...

সত্য কথা যায়না বলা

সত‍্য ও সহজ কথা বলা যায়না সহজে নানান জনে না না কথা কহে যে আমার যা বলা উচিৎ তা বলতে পারিনা যা লেখা উচিৎ ছিল তা লিখতেও পারচ্ছি না সত‍্যবলে ইতিমধ‍্যে হয়েছি অনেকর শত্রু এভাবে বলতে থাকলে কেউ থাকবেনা মোর মিত্র!! মুখ খুললে বাঁধবে হট্রগোল পাবনা পাশে এই মনোবেদনা বলবো কার কাছে সত‍্য বললে কি হবে? হবে হট্রগোল বেঁধে যাবে না না মূখী গন্ডগোল!! তাই…
বিস্তারিত ...

লোকমান হাকিমের কেরামতির গল্প (পর্ব-৩)

লোকমান হাকিমের কেরামতির গল্প (পর্ব-২) এখানে। রাক্ষসী কোঁয়া কোঁয়ার ভয়ে মনের ভেতর ভয়ানক চিন্তা নিয়ে একসময় বাদশাহ ঘুমিয়ে পড়লেও, সেই রাতে বাদশাহর তেমন ঘুম হয়নি, মৃত্যুও হয়নি। ভোর হতে-না-হতেই বাদশাহ আবার ছুটে গেলেন বন্ধু লোকমান হাকিমের বাড়ি। বাদশাহর এখন আর কিছুই ভালো লাগছিল না। খাওয়া নেই। নাওয়া নেই। ঘুম নেই। বাদশাহ এখন শারীরিক দিক দিয়েও ক্লান্ত…
বিস্তারিত ...

বেঁচে থাকা দায়

আমি মানুষ- তুমি মানুষ মানুষ সমগ্র জুড়ে- তোমার লাল -আমার লাল রক্ত পৃথিবী দেহে; তবু সকাল দুপুর সন্ধ্যা চলে হিংসা হিংসী এর মাঝে বেঁচে থাকা দায়; দাদার মৃত্যু- নানার মৃত্যু মৃত্যু এই সংসারে কেউ ভাবে না- কাল যে চলে যেতে হবে কোন সংসারে? জীবন এক আজব ঘটনা- কেউ ভাবে না- কেউ ভাবে না এক লাফে উঠতে চায় তাল গাছে তবু পরিচয় মানুষ সমগ্র জুড়ে- ঈশ্বর…
বিস্তারিত ...